২০২১ এ বিজেপি ২০০ টির বেশি আসন পাবে, তৃণমূল ৫০ টা সিট ও পাবে না বললেন বিজেপি নেতা বাবাই হালদার ও সত্যজিৎ গুপ্তা।

রাজ্য

আর এক বছরও নেই ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচন। কিন্ত ২০২১ কে পাখির চোখ করে এগোচ্ছেন মোদী -অমিত শাহ ও জে পি নাড্ডারা। বাংলায় বিজেপি সরকার গড়তে মরিয়া কেন্দ্রীয় বিজেপি। অন্যদিকে বাংলার মানুষও বিজেপি সরকার গড়তে মরিয়া আছেন। বিজেপি নেতা বাবাই হালদার এবং সত্যজিৎ গুপ্তা জানান, বাংলায় ২০২১ সালে বিজেপি একাই ২০০ টারও বেশি আসনে জিতবে। এবং তৃণমূল ৫০ টাও আসন জিততে পারবে না। বাংলায় বিজেপি সরকার একক সংখ্যা গরিষ্ঠতায় আসতে চলেছে।

বিজেপি নেতা বাবাই হালদার জানান, বাংলার মানুষ আর চাইছে না তৃণমূল সরকারকে। তিনি জানান, বাংলায় তৃণমূলের নেতারা আকাশ থেকে মাটি পর্যন্ত দূর্নিতীতে জড়িয়ে আছেন। তৃণমূলের নেতারা মিড ডে মিল থেকে শুরু করে রেশন দূর্নিতী, সারদা, নারদা থেকে শুরু করে SSC তেও দূর্নিতীতে জড়িয়ে আছেন। আমফানের টাকা তছনছের অভিযোগ আসছে বিভিন্ন জেলা থেকে। তারপর মমতা ব্যানার্জী যে ভাবে ধর্মের মেরুকরন করছেন তাতে বাংলার হিন্দুরা আগামীদিনে তৃণমূলকে ভোট দেবে না। বিজেপি নেতা জানান লকডাউনেও তৃণমূলের আসল রুপ দেখে ফেলেছে বাংলার মানুষ। কোলকাতার মানুষ আর তৃণমূলকে ভোট দেবে না। তিনি জানান, বাংলায় বিজেপি একাই ২০০ টা থেকে ২৩০ টা আসন পাবে বাংলায়।

বিজেপি নেতা সত্যজিৎ গুপ্তা জানান, বাংলায় ২০২১ এ বিজেপি সরকার আসছে। তিনি জানান, বাংলায় বিজেপি একাই ২০০ এর ও বেশি আসনে জিতবে। তৃণমূলের দূর্নিতী এবং সব জায়গায় জিহাদীদের সুবিধা করে দিচ্ছে মমতা ব্যানার্জী। মমতার বিদায় ঘন্টা বেজে গেছে। তিনি বলেন, বাংলার মানুষ এক কথায় তৃণমূলের পতন চায়ছেন, আগামী কয়েক মাসের মধ্যে তৃণমূলের বড় ভাঙন শুরু হবে। তিনি জানান, আমফান ঘূর্ণিঝড়ের ফলে কোলকাতার মানুষ আর তৃণমূলকে ভোট দেবে না। তৃণমূল সরকারের পতন শুধু সময়ের অপেক্ষা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *