কৃষি আইন প্রত্যাহারে লাভ হবে মোদীর, বিরোধীরা চরম ক্ষতির সামনা করবে। ৫ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের আগেই ভরাডুবি হল বিরোধীদের। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা এমনই মনে করছেন।

দেশ

শুক্রবার গুরুনানকের জন্মদিনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর এক চালে চরম শঙ্কটে বিরোধী শিবির। ৫ রাজ্য নির্বাচনের আগেই হাতছাড়া হতে পারে বিরোধীদের। শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, ‘আমি দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চাইছি। আমার তিনটি কৃষি আইন রদ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি’। এরপরেই কৃষক শিবিরে দেশ জুড়ে আনন্দে মেতে উঠেছেন। বিরোধী দল কংগ্রেস থেকে মোদী বিরোধী দল গুলো বলছেন তাদের চাপেই নরেন্দ্র মোদী কৃষি বিল প্রত্যাহার করেছেন। কিন্তু একটু গভীরে গেলে দেখা যাচ্ছে কৃষি বিল প্রত্যাহারের ফলে ২০২২ এ ৫ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপিই আবার ফিরে আসার সম্ভাবনা আরও জোরালো হচ্ছে।

কৃষি আইন প্রত্যাহারে লাভ হবে মোদীর, বিরোধীরা চরম ক্ষতির সামনে করবে। ৫ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের আগেই ভরাডুবি হবে বিরোধীদের। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা এমনই মনে করছেন। তার সঙ্কেট পাওয়া গেছে পাঞ্জাবের প্রাক্তন মূখ্যমন্ত্রী অমরিন্দর সিং। ক্যাপ্টেন ট্যুইট করে লিখেছেন কেন্দ্র সরকারের এই সিদ্ধান্তে শুধু কৃষকরা স্বস্তি পাবে না, পাঞ্জাবের প্রগতির কাজ হবে। আমি কৃষকদের উন্নয়নের জন্য বিজেপির সঙ্গে কাজ করার জন্য উৎসুক। আমি পাঞ্জাবের মানুষকে প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি যে, আমি ততদিন শান্তিতে বসবো না, যতদিন না আমার চোখের জল মুছছে।

কৃষি আইন প্রত্যাহারে NDA জোটে ফিরতে চাইছেন বিজেপির সঙ্গী কিছু নতুন ও পুরনো দল গুলো। তারফলে দেশ জুড়ে আরও শক্তিশালী হবে NDA জোট ও মোদী সরকার। পাঞ্জাবের প্রাক্তন মূখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং এই সিদ্ধান্তে খুশি জাহির করে জানিয়েছেন যে, তিনি বিজেপির সঙ্গে কাজ করার জন্য উৎসুক রয়েছেন। তার বয়ানে এটা পরিস্কার ২০২২ এর পাঞ্জাব বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির সাথে জোট করতে চলেছেন ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং।

দের বছর ধরে কৃষক আন্দোলন কে কয়েক মিনিটের মধ্যে সমাপ্ত করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। অনেকই মনে করছেন মোদীর এক চালে চরম চাপে বিরোধী শিবির। দেশে যে ভাবে কৃষক আন্দোলনের নামে জঙ্গি সংগঠন গুলো ফুলে ফেপে উঠছিল সেই দিকে নজর দিয়ে মোদীর এই সিদ্ধান্ত বলে অনেকেই মনে করছেন। কৃষক আন্দলোনের পিছনে খালিস্তান যোগ আগেই পাওয়া গিয়েছে। দের বছর ধরে যে কৃষক আন্দলোনের নামে মোদী বিরোধিতা করছিল সেটা ৫ রাজ্যে ভোটের মুখে অনেকটাই চাপের মুখে পড়ে গেল কংগ্রেস ও বিরোধী দল গুলো। এখন আর কোন বড় ইস্যু থাকলো না মোদী বিরোধিতায়।

কৃষি আইন রদ করার ফলে বিজেপির পুরোনো সঙ্গী শিরমনি আকালী দল আবার NDA তে যোগ দিতে পারে। এরফলে দেশজুড়ে NDA জোট আরও শক্তিশালী হবে। এবং আরও কিছু ছোট ছোট দল NDA জোটে যোগ দিতে চলছেন বলে খবর আসছে। এদিকে কৃষি বিল রদ হতেই উত্তর প্রদেশের একাংশে কৃষক আন্দোলন থেমে যাবে তারফলে ২০২২ এর বিধানসভা নির্বাচনে উত্তর প্রদেশে যোগী আদিত্যনাথের সরকার আবার ফিরে আসতে চলেছে। মোদীর এক টিরে বিধঁলেন অনেকেই তারফলে চরম চাপে বিরোধীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *